জীবন বদলানোর সহজ সূত্র | এ পি জে আব্দুল কালাম

ভারতরত্ন পুরস্কার পাওয়া, “ভারতের মিসাইল ম্যান” খ্যাত পরমানু বিজ্ঞানী এপিজে আব্দুল কালাম । তার পুরো নাম আবুল পাকির জয়নুল আবেদিন আব্দুল কালাম ।
খুব গরীব পরিবারের সন্তান তিনি । ছোটবেলা থেকেই জীবিকার প্রয়োজনে বিভিন্ন পেশায় কাজ করেছেন । স্কুল ছুটির পর পত্রিকা বিক্রির কাজও করেছিলেন একসময় ।
তখন কে জানতো, এই গরীব পরিবারের সন্তানটি একদিন হয়ে উঠবেন ভারতের রাষ্ট্রপতি?

পাই ফিঙ্গার্স মোটিভেশনের এই পর্বে আমরা তরুণদের জন্য কিংবদন্তী এপিজে আব্দুল কালামের কিছু অনুপ্রেরণামূলক নির্দেশনার কথা শোনাবো ।
তো শুরু হয়ে যাক । আর তোমরা এরই মধ্যে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করে ফেলো- যাতে পরবর্তীতে মোটিভেশনাল, ইন্সপ্রেশনাল অথবা বিখ্যাতদের সংক্ষিপ্ত জীবনীর ভিডিওগুলো নিয়মিত পেয়ে যেতে পারো । সাবস্ক্রাইব করে অবশ্যই বেলটিতে ক্লিক করবে ।

স্কুল ছুটির পর পত্রিকা বিক্রির কাজও করেছিলেন একসময় ।

তিনি ২০০২ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত ভারতের রাষ্ট্রপ্রতির দায়িত্ব পালন করেছেন । পদার্থবিজ্ঞান ও বিমান প্রকৌশলবিদ্যায় পড়াশুনা করে পরবর্তী চল্লিশ বছর ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থায় বিজ্ঞানী ও বিজ্ঞানের প্রশাসকের দায়িত্বে ছিলেন । কাজের স্বীকৃতি হিসেবে জয় করে নিয়েছেন অসংখ্য নামীদামী পুরষ্কার ।

তার বিপুল ও বিচিত্র অভিজ্ঞতাময় জীবন থেকে তিনি রেখে গেছেন অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ কাজ এবং তরুনদের জন্য দারুণ অনুপ্রেরণামূলক কথামালা । আপনাদের সামনে তুলে ধরছি এপিজে আব্দুল কালামের কিছু বিখ্যাত উক্তি, যা হয়ত তোমার জীবন পরিবর্তনে কিছুটা হলেও ভূমিকা রাখতে পারবে বলে বিশ্বাস ।

১। স্বপ্ন বাস্তবায়ন না হাওয়া পর্যন্ত তোমাকে স্বপ্ন দেখে যেতে হবে । স্বপ্ন সেটা নয়, যেটা তুমি ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে দেখো, স্বপ্ন হল সেটাই – যা পুরনের প্রত্যাশা তোমাকে ঘুমাতে দেয় না ।

২। তুমি তোমার ভবিষ্যৎ পরিবর্তন করতে পারবেনা, কিন্তু তোমার অভ্যাস পরিবর্তন করতে পারবে এবং নিশ্চিতভাবে অভ্যাসই তোমার ভবিষ্যৎ পরিবর্তন করে দিবে ।

৩। জীবনে কঠিন বাধাগুলো আসে তোমাকে ধ্বংস করতে নয়, বরং তোমার ভেতরে লুকনো অমিত শক্তি ও সম্ভবনাকে অনুধাবন করাতে, বাঁধাসমুহকে দেখাও তুমিও কম কঠিন নও ।

তার দুঃসময়ের একটি হৃদয়স্পর্শী গল্প 

৪। তুমি যদি তোমার কাজকে স্যালুট কর, দেখবে তোমার আর কাউকে স্যালুট করতে হবে না । কিন্তু তুমি যদি তোমার কাজকে অসম্মান করো, অমর্যাদা করো, ফাকি দাও, তাহলে তোমারই সবাইকে স্যালুট করতে হবে ।

৫। যদি সূর্যের মত দীপ্তিমান হতে চাও, তাহলে – তোমাকেই প্রথমে সূর্যের মতো পুড়তে হবে ।

৬। যারা হৃদয় দিয়ে কাজ করতে পারে না, তাদের অর্জন আনন্দহীন । আকর্ষণহীন, এমন সাফল্য থেকেই সৃষ্টি হয় চরম তিক্ততা ।

তার হার না মানা সফলতার গল্প 

৭। জীবন ও সময় হচ্ছে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শিক্ষক । জীবন শেখায় সময়কে সঠিকভাবে ব্যবহার করতে, আর সময় শেখায় জীবনের মূল্য দিতে ।

৮। ভিন্নরকম চিন্তা ও উদ্ভাবনের সাহস থাকতে হবে । আবিষ্কারের নেশা থাকতে হবে, যে পথে কেউ যায়নি সেই পথেই চলতে হবে, অসম্ভবকে সম্ভব করার সাহস থাকতে হবে এবং সমস্যাকে জয় করেই সফল হতে হবে ।

১০। প্রতিদিন সকালে এই পাঁচটি লাইন বলবে –

আমি সেরা । আমি করতে পারি । সৃষ্টিকর্তা সবসময় আমার সঙ্গে আছেন । আমি জয়ী । আজকের দিনটা আমার ।

১১। একটা কথা একদম পরিষ্কার, সৃষ্টিকর্তা তাদেরই সহায় থাকেন যারা কঠোর পরিশ্রম করে ।

এ পি জে আব্দুল কালামের যে গল্প আপনাকে কাঁদাবে

আপনার আশে পাশে যদি এমন কোন মানুষ থাকে যার এই লেখাটি পড়া উচিত বলে মনে করেন , তার সাথে অবশ্যই শেয়ার করবেন । অনুপ্রেরণামূলক গল্প, সফল ব্যক্তিদের জীবনী, সফলতার সূত্র এবং জীবনের নানান সমস্যা আপনাদের পাশে আছে পাই ফিঙ্গার্স মোটিভেশন । আর আগামী পর্বে আপনি কোন বিষয়ে লেখা চান কমেন্ট করে জানান । ভাল থাকুন ।

সফলতা কেবল আপনার জন্যই ।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top